ডেস্ক রিপোর্ট

১ জুলাই ২০২৪, ৯:১৮ অপরাহ্ণ

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের ঘোষিত আন্দোলনে শিক্ষক ফোরামের একাত্মতা প্রকাশ

আপডেট টাইম : জুলাই ১, ২০২৪ ৯:১৮ অপরাহ্ণ

শেয়ার করুন

অধিকার ডেস্ক: প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম এর সভাপতি অধ্যাপক আবিদুর রেজা এবং সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বাক অধ্যাপক আবুল কাশেম ও সদস্য সচিব অধ্যক্ষ মোশায়েদ হোসেন ঢালী আজ ১ জুলাই ২০২৪ সংবাদপত্রে দেয়া এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন ঘোষিত চলমান আন্দোলন তথা পেনশন সংক্রান্ত বৈষম্যমূলক প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার, সুপার গ্রেডে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভূক্তি এবং শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতন স্কেল প্রবর্তনের দাবির প্রতি একাত্মতা ঘোষনা করেন। একই সাথে শিক্ষক আন্দোলনের ফলে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে উদ্ভুত সংকট আলোচনার মাধ্যমে দ্রুত নিরসনের জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সর্বোচ্চ মর্যাদা, বেতন ভাতার দাবিতে যেমন সকল শিক্ষকমন্ডলী ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলনে নেমেছেন, তেমনি শিক্ষাঙ্গনে সন্ত্রাস-দখলদারিত্ব বন্ধ, শিক্ষার মানোন্নয়ন, গণতান্ত্রিক ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠা এবং জাতীয় জীবনে সৃষ্ট সংকট, গণতন্ত্র ও নাগরিকের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্যও ঐক্যবদ্ধভাবে জাতির সামনে পথপ্রদর্শকের ভ‚মিকা পালন করবে বলে প্রত্যাশা করেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ সংবিধানের আলোকে সর্বজনীন, বিজ্ঞান ভিত্তিক, একই পদ্ধতির সেক্যুলার, বৈষম্যহীন, গণতান্ত্রিক শিক্ষা ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার জন্য নিন্মোক্ত দাবিসমূহ বাস্তবায়নের জোর দাবি জানান।

দাবিসমূহ-
১) শিক্ষাকে মৌলিক অধিকার হিসেবে সাংবিধানিক স্বীকৃতি দিয়ে সকল নাগরিকের জন্য বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ; শিক্ষার জাতীয়করণ।

২) বাজেটে শিক্ষা খাতে জিডিপির শতকরা ৬ ভাগ বরাদ্দ প্রদান।

৩) শিক্ষকদের সর্বোচ্চ সামাজিক মর্যাদা ও বেতন ভাতা প্রদানসহ ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্ট এ স্থান নির্ধারণ এবং
৪) সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বায়ত্তশাসন প্রদান করা।’

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত দাবিসমূহ বাস্তবায়নের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত চেতনায় বাংলাদেশের শিক্ষা ও শিক্ষা ব্যবস্থাকে গড়ে তুলতে উদ্যোগ গ্রহণে সরকারকে বাধ্য করতে শিক্ষক সমাজকে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলনে সামিল হওয়ার আহ্বান জানান।

শেয়ার করুন