ডেস্ক রিপোর্ট

১৬ জানুয়ারি ২০২৪, ১:৩৯ অপরাহ্ণ

ঠাকুরগাঁওয়ে বৃষ্টির মতো পড়ছে কুয়াশা, দুর্ভোগে ছিন্নমূল মানুষ

আপডেট টাইম : জানুয়ারি ১৬, ২০২৪ ১:৩৯ অপরাহ্ণ

শেয়ার করুন

অধিকার ডেস্ক: ঘন কুয়াশার সঙ্গে তীব্র শীত বইছে ঠাকুরগাঁওয়ে। সেই সঙ্গে ঝিরঝির বৃষ্টির মতো কুয়াশা শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) ভোর থেকে এ পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এমন অবস্থায় দরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষ দুর্ভোগে পড়েছেন। আলু চাষিরাও উৎকণ্ঠায় আছেন। হঠাৎ এমন আবহাওয়ায় আলু আর আমন ধানের বীজতলা (চারা) মারাত্মক ক্ষতি হবে এমনটি আশঙ্কা করছেন চাষিরা।

জানুয়ারি মাসের শুরু থেকে উত্তরের জেলা ঠাকুরগাঁওয়ে জেঁকে বসেছে এমন শীত। কনকনে ঠাণ্ডা আর হিমেল বাতাসের সঙ্গে বৃষ্টির মতো কুয়াশা পড়ায় দুর্ভোগের শেষ নেই মানুষের। মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) ঠাকুরগাঁওয়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

গত কয়েক দিন ধরেই জেলাটিতে তীব্র শীত ও ঠাণ্ডা বাতাস বইছে। গত ৭ দিন ধরে আকাশ থাকছে মেঘাচ্ছন্ন। একই সঙ্গে মঙ্গলবার ভোর থেকে নামছে তুষারের মতো কুয়াশা। ঠাণ্ডায় কাহিল হয়ে পড়েছে জেলার মানুষ।

ঘন কুয়াশা আর হিমেল হাওয়ায় শীতে দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষও নাকাল হয়ে পড়েছে। কুয়াশার চাদর ভেদ করে সূর্যের আলোর উত্তাপ পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে কমছে না শীতের তীব্রতা। শীতবস্ত্রের অভাবে শীতের তীব্রতা থেকে মুক্তি পেতে অনেককে খড়কুটো জ্বালাতে দেখা গেলেও জেলা প্রশাসন থেকে শীতার্তদের তেমন সহযোগিতা করতে দেখা যায়নি।

কৃষক মারুফ, বিপুল ও সেলিম বলেন, অনেক ঠাণ্ডা আর ঘন কুয়াশার সঙ্গে পড়ছে বরফের মতো বৃষ্টি। সন্ধ্যার পর ঠাণ্ডার দাপটে ঘর থেকে বেরোনো যাচ্ছে না। সকাল-সন্ধ্যা, খড়-কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করতে হচ্ছে। হতদরিদ্র লোকজনের অবস্থা চরম শোচনীয় হয়েছে। এছাড়া আমাদের রোপণকৃত আলু ও আমন ধানের বীজে দেখা দিচ্ছে পচন।

ঠাকুরগাঁও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সিরাজুল ইসলাম বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ে মঙ্গলবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এমন অবস্থা আরও কয়েক দিন থাকতে পারে।

শেয়ার করুন